প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকের পদ বাড়ছে ৫ হাজার, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকের পদ বাড়ছে ৫ হাজার, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগের ফল আগামী ১৪ ডিসেম্বর বিকেলে প্রকাশ করা হবে। সোমবার বিকেলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান তুহিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

দেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষার ফল আগামী বুধবার (১৪ ডিসেম্বর) প্রকাশ করা হবে। ৫ হাজার পদ বাড়িয়ে সাড়ে ৩৭ হাজার শিক্ষক নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

৩২ হাজার ৫৭৭ পদে শিক্ষক নিয়োগের সিদ্ধান্ত হলেও সে সংখ্যা বাড়ছে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। জনসংযোগ কর্মকর্তা আরও জানিয়েছেন, প্রকৃত শূন্যপদ পূরণের অপরিহার্যতা যাচাই-বাছাই করে চুড়ান্ত করে এ পরীক্ষার ফল আগামী ১৪ ডিসেম্বর অপরাহ্নে প্রকাশ করা হবে।

আমরা অজই ফল প্রকাশ করতে চেয়েছিলাম। তবে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের আন্দোলনের কারণে পদ সংখ্যা বাড়ানো যায় কিনা সেটি পর্যালোচনা করা হবে। পর্যালোচনায় পদ সংখ্যা বাড়ানোর বিষয়টি সামনে আসলে পদ সংখ্যা বাড়ানো হবে। সেজন্য কিছুটা সময় লাগবে।

তিনি আরও বলেন, আগামী ১৪ ডিসেম্বর ফল প্রকাশের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে। এটিই চূড়ান্ত। এদিন সন্ধ্যার আগেই ফল প্রকাশ করা হবে।

আজ সোমবার ফল প্রকাশের জন্য সভা বসলেও ফল প্রকাশের সিদ্ধান্ত আসেনি। সূত্র জানিয়েছে, তাই সোমবার ফল প্রকাশ হচ্ছে না।

প্রাথমিকে ৩২ হাজার ৫৭৭ পদে শিক্ষক নিয়োগের সিদ্ধান্ত হলেও সে সংখ্যা বাড়ছে বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের একাধিক কর্মকর্তা। ফল আজই প্রকাশের জন্য ঠিকঠাক হয়েছিলো। শেষ সময়ে খবর এসেছে পদ সংখ্যা বাড়িয়ে দিতে হবে। আর ফল প্রকাশের দায়িত্বে থাকা বুয়েটের একটি বিভাগ থেকে সময় চাওয়া হয়েছে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শাহ রেজওয়ান হায়াত বলেন, বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত পদেই নিয়োগ হচ্ছে। সে অনুসারে ৩২ হাজার ৫৭৭ পদেই নিয়োগ দেওয়া হবে। ফলাফল কবে প্রকাশিত হবে, এখনো নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।

সুতরাং, সহকারী শিক্ষকের পদসংখ্যা বাড়িয়ে ৪৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগের কথা থাকলেও শেষ মুহূর্তে এটি আর হচ্ছে না। বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ থাকা পদেই নিয়োগ দেওয়ার বিষয়টি চূড়ান্ত করা হয়েছে।

সিদ্ধান্ত অনুসারে ৪৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগের কথা ছিল। সেটি ধরে ওই পরিমাণ শিক্ষককে নির্বাচিত করার প্রক্রিয়াও চলছিল। কিন্তু মন্ত্রণালয়ের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না আসার কারণে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত পদেই নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। কয়েক কর্মকর্তার আপত্তির কারণেই অতিরিক্ত ১০ হাজার শিক্ষক নেওয়া যাচ্ছে না।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকের পদ বাড়ছে না, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগের পদ সংখ্যা জানিয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘‘সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ ২০২০ এর মাধ্যমে নিয়োগের জন্য ইতিপূর্বে অনুমোদিত মোট শূন্য পদসংখ্যা ৩২ হাজার ৫৭৭ অপরিবর্তিত রেখে প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণির জন্য রাজস্বখাতে সৃজিত সহকারী শিক্ষকের ২৫ হাজার ৫৯৮ এবং রাজস্বখাতে ৬ হাজার ৯৭৯ টি শূন্যপদে নিয়োগের নির্দেশক্রমে অনুমোদন জ্ঞাপন করা হলো।’’

উল্লেখ্য, ২০২০ সালে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। বিজ্ঞপ্তিতে ৩২ হাজার ৫৭৭ জনকে নিয়োগের কথা বলা। তবে এর সাথে আরও ১০ হাজার পদ শূন্য হয়। পরবর্তীতে এই পদগুলোতেও নিয়োগের উদ্যোগ নেয় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। তবে শেষ পর্যন্ত মন্ত্রণালয়ের সেই উদ্যোগ আলোর মুখ দেখল না।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শাহ রেজওয়ান হায়াত বলেন, প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগের পদ সংখ্যা বাড়ছে না। পূর্বের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নিয়োগ দেওয়া হবে। চলতি নভেম্বর মাসে ফ ল প্রকাশের চেষ্টা করা হচ্ছে।

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে DailyResultBD.com ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল নোটিশ দেখুন এখানে একসাথে National University Notice Board আমাদের ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করুন Facebook Group