দেশে ঘরবন্দি শিক্ষার্থীরা ভুগছে হতাশায়

দেশে ঘরবন্দি শিক্ষার্থীরা ভুগছে হতাশায়। বিশ্ব মহামারি করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে সরকার দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, কোচিং সেন্টার ও প্রাইভেট নিষিদ্ধ করায় ঘরবন্দি হয়ে পড়েছে শিক্ষার্থীরা। এতে শুধু তাদের পড়ালেখার ক্ষতি হচ্ছে না, মন ও আচরণেও নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে।

বর্তমানে টিভি চ্যানেলগুলোয় সারাক্ষণ করোনাভাইরাসের ভয়াবহতা প্রচার করায় ঘরের ভেতরের পরিবেশও হতাশাময় হয়ে উঠেছে। কোথাও নির্মল আনন্দের ছোঁয়া নেই। এ পরিস্থিতির মধ্যেও কিছু চ্যানেল বিরক্তিকরভাবে ছায়াছবি ও বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান প্রচার করছে। কিন্তু চ্যানেলগুলো যদি সংসদ টিভির মতো পাঠদানের অনুষ্ঠান প্রচার করত তাহলে পড়ালেখা নিয়ে ব্যস্ত থাকতে পারত শিক্ষার্থীরা। এতে কিছুটা হলেও হতাশা ও ঘরবন্দি থাকার কষ্ট ভুলে যেতে পারত তারা।

ময়মনসিংহের গফরগাঁও পৌর শহরের শিলাসী এলাকার গৃহবধূ শামীমা আক্তারের তিন কন্যাই স্কুলছাত্রী। করোনাজনিত পরিস্থিতিতে ঘরবন্দি থাকায় সারাক্ষণ মন মরা হয়ে থাকে তারা। এ ব্যাপারে শামীমা আক্তার বলেন, ‘একদিকে করোনা নিয়ে আতঙ্কের মধ্যে আছি। অন্যদিকে রয়েছে বাচ্চাদের পড়ালেখা নিয়ে দুশ্চিন্তা। এ অবস্থায় জোর করে তাদের পড়ানো যাচ্ছে না। দিন দিন ওদের মেজাজ খিটখিটে হয়ে যাচ্ছে।’

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে DailyResultBD এর ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel

খায়রুল্লাহ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নূরুজ্জামান বলেন, ‘সংসদ টিভির পাঠদান শুধু ডিশের লাইন আছে—এমন এলাকাতেই সম্প্রচার হয়। ফলে গ্রামগঞ্জের শিক্ষার্থীরা পাঠদান থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। তাই পাঠদান অনুষ্ঠানটি বিটিভির পাশাপাশি সব ধরনের চ্যানেলে সম্প্রচার হলে গ্রামের শিক্ষার্থীরা উপকৃত হতো।’

নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলার বেশির ভাগ এলাকায়ও দেখা যাচ্ছে না সংসদ টিভি। ফলে সরকারের ‘আমার ঘর আমার স্কুল’ কার্যক্রমের সুফল পাচ্ছে না। উপজেলার বিভিন্ন এলাকার শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা জানান, কেবল নেটওয়ার্ক সংযোগ ছাড়া কোথাও সংসদ টিভি দেখা যাচ্ছে না। আবার কেবল সংযোগ থাকা সত্ত্বেও অনেকে সংসদ টিভির সংযোগ পাচ্ছে না। ফলে সংসদ টিভির পাঠদান কার্যক্রম অনেক শিক্ষার্থীই দেখতে পারছে না।

উপজেলার মৌদাম গ্রামের পল্লী চিকিৎসক আবু রায়হান তালুকদার জানান, তাঁর ছেলে সিফায়েতুল ইসলাম মিডিয়া আইডিয়াল স্কুলে ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ে। স্কুল বন্ধ থাকায় সংসদ টিভিতে পাঠদান হবে শুনে তিনি নতুন টিভি কিনেছেন। কিন্তু চ্যানেলটি দেখা না যাওয়ায় তা কোনো কাজে আসছে না।

পূর্বধলা জে এম সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী ইসরাত জাহান জেরিন, সুমনা সরকার; ঘাগড়া দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী ইসরাত জাহান হলি, অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী মিজানুর রহমান ও ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী ইভা জানায়, সংসদ টেলিভিশন দেখতে না পাওয়ায় তারা পাঠদান কর্মসূচি থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

আগিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বদরুজ্জামান বলেন, সংসদ টিভিতে পাঠদান কার্যক্রম দেখতে অধিদপ্তর থেকে শিক্ষকদেরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু ক্যাবল সংযোগ থাকা সত্ত্বেও সংসদ টিভি দেখা যাচ্ছে না।

শিক্ষা সংক্রান্ত সকল তথ্য পেতে আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel

পূর্বধলা জগত্মণি সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শুধাংশু শেখর তালুকদার বলেন, ‘বিদ্যালয় বন্ধকালীন টেলিভিশনে পাঠদান কার্যক্রম চালানো একটি সময় উপযোগী উদ্যোগ। কিন্তু এটি ঠিকমতো দেখতে না পাওয়ায় শিক্ষার্থীরা এর সুফল থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। তবে বিটিভিসহ সব চ্যানেলে পাঠদান কার্যক্রম প্রচার করলে শিক্ষার্থীরা এর সুফল পাবে।’

Related Content