প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগ ২০১৮ পরীক্ষার নির্দেশনা

রাজস্বখাতভূক্ত “সহকারী শিক্ষক নিয়ােগ ২০১৮” এর লিখিত পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীদের জন্য নির্দেশনাবলী। প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগ ২০১৮ পরীক্ষার নির্দেশনা। প্রার্থীকে অবশ্যই এ নির্দেশনা অনুযায়ী ও-এম.আর.শীট পূরণ করতে হবে।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে রাজখ খাতভূক্ত সহকারী শিক্ষক নিয়ােগ ২০১৮” এর লিখিত পরীক্ষা শুধুমাত্র নৈর্ব্যক্তিক (এমসিকিউ) প্রশ্নে গ্রহণ করা হবে।

পরীক্ষার মােট সময় ১ ঘন্টা (৬০ মিনিট)। ৮০ (আশি) নম্বরে লিখিত পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। মােট প্রশ্ন সংখ্যা হবে ৮০ (আশি)। প্রতি প্রশ্নের জনে ১ (এক) নম্বর নির্ধারণ করা আছে। উত্তরদাতা প্রতিটি শুদ্ধ উওরের জন্য ১ (এক) নম্বর পাবেন এবং
প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ (দশমিক. দুই পাচ) নম্বর কাটা যাবে।

বিকাশ একাউন্টে ফ্রি ১৫০ টাকা বোনাস নিয়ে নিন !!নতুন বিকাশ অ্যাপ থেকে নিজের একাউন্ট খুলুন মিনিটেই, শুধুমাত্র জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে। কোথাও যেতে হবে না! আর অ্যাপ থেকে একাউন্ট খুলে প্রথম লগ ইনে পাবেন ১০০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস! - প্রথম বার ২৫ টাকা রিচার্জে ৫০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস Bkash App Download Link

আরো পড়ুন –
প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার প্রবেশপত্র ২০১৯ পাওয়া যাবে যেভাবে 

শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার সময়সূচি 2019

প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগ ২০১৮ পরীক্ষার নির্দেশনা

•ওএমআর শীটের উপরের অংশে সন লেখার জন্য চারটি ঘর সম্বলিত ছক আছে। এই ছকের দুটি সংখ্যা (২০) লেখা আছে। বাকি ১৯ সংখ্যাটি পরীক্ষার্থীকে লিখে সনের ঘর পূণ করতে হবে। অর্থাৎ সম্পূর্ণ সংখ্যাটি হবে ২০১৮।

•ওএমার শীটের বৃত্তাকার ঘরগুলাে অবশ্যই কালাে কালির বল পয়েন্ট কলম দ্বারা ভরাট করতে হবে। ওএমএর শীট পেন্সিল দ্বারা পূরণ করে পরবর্তীতে কালাে কালির বল পয়েন্ট কলম দ্বারা ভরাট করা যাবে না। উত্তরপত্র পেন্সিলে বৃত্ত ভরাট বা লেখা অথবা ফাঁকা রাখলে উত্তরপত্রটি বাতিল বলে গণ্য হবে।

•নৈর্ব্যক্তিক প্রত্যেক প্রশ্ন নম্বরের নিচে (ক), (খ), (গ), (ঘ) এ রকম ৪টি করে উত্তর দেয়া থাকবে। উত্তর প্রদানের জন্য পরীক্ষা কক্ষে প্রত্যেক প্রার্থীকে আলাদাভাবে একটি করে ও.এম,আর, শীট ও প্রশ্নপত্র সরবরাহ করা হবে। প্রার্থী অবশ্যই নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নের উত্তরের জন্য সরবরাহকৃত ও.এম.আর. শীটটি ব্যবহার করবেন। কোন অবস্থাতেই ওএমআর বা প্রশ্নপত্রে বা প্রশ্নের পার্শ্বে বা সম্ভাব্য উত্তরের ডান পাশে উত্তর হিসেবে কোন টিক (√) চিহ্ন বা অন্য কোন চিহ্ন দেয়া যাবে না।

•নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নের উত্তরপত্র বা ও.এম.আর, শীটের বাম পার্শ্বে প্রশ্ন নম্বর ও উহার  ডান পার্শ্বে ক খ গ ঘ ভাবে ৪ টি বৃত্তাকার ঘর থাকবে।

•প্রার্থী  নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নের সঠিক উত্তর নির্ণয় করে ও.এম, আর, শীটে তার বাছাইকৃত সংশ্লিষ্ট উত্তরের বৃত্তাকার ঘরটি কালাে কালির বলপয়েন্ট কলম দ্বারা পূরণ করবেন। বৃওাকার ঘরগুলাে পূর্ণভাবে ভরাট করতে হবে।

•নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নে উত্তর দেয়ার পূর্বে প্রশ্নটি ভালভাবে পড়ে ও.এম,আর, শীটের সংশ্লিষ্ট প্রশ্নের ডানদিকের একটি মাত্র বৃত্তাকার ঘর ভরাট করতে হবে। কোন প্রশ্নের উত্তর ভুল হলে তা কেটে অন্য কোন ঘর ভরাট করা যাবে না। বৃত্তাকার ঘরগুলাে অবশ্যই কালো কালির বলপয়েন্ট কলম দ্বারা ভরাট করতে হবে। একই প্রশ্নের উত্তরে একাধিক বৃত্তাকার ঘর পূরণ/দাগ দেয়া হলে সংশিষ্ট প্রশ্নোত্তর বাতিল বলে গণ্য হবে।

•ওএমআর শীটটি কোন অবস্থাতেই ভাঁজ করা যাবে না। পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন ও ভাঁজহীন উত্তরপত্র মেশিন মুল্যায়নের জন্য অপরিহার্য। নিধারিত ঘর ব্যতীত অন্য কোন জায়গায় কোনরূপ দাগ চিহ্ন দেয়া যাবে না। এইরূপ দাগ/চিহ্ন থাকলে উত্তরপত্র বাতিল বলে গণ্য হবে।

•ওএমআর শিটে রােল নম্বরে ঘর পূরণ করার সময় রােল নম্বরের নিচের বৃত্তাকার ঘরগুলিতে সঠিক সংখ্যা কালাে কালির পয়েন্ট কলম দ্বারা পূর্ণভাবে ভরাট করতে হবে। রোল নম্বরে এর ভরাট করার সময় অবশই প্রথমে একক, তারপর দশক, অতঃপর শতক এই ক্রম অনুসরণ করে রােল নম্বর ঘর ভরাট করতে হবে। তাছাড়া প্রার্থীর নাম, পিতার নাম, মাতার নাম ও জেলার নাম সহস্তে পূরণ করে প্রার্থীর স্বাক্ষরের ঘরে তাকে স্বাক্ষর করতে হবে।

• ওএমআর-এর নিচের অংশের বাম পাশে প্রশ্ন উত্তরসরমূহের বৃত্ত পূরণ করবেন। এব্যতীত কোন কিছু লিখলে, চিহ্ন দিলে, স্বাক্ষর করলে বা কোন সীলমােহর ব্যবহার করলে উত্তরপত্রটি সরাসরি বাতিল বলে গণ্য হবে।

•ওএমআর শীটে পরীক্ষার্থীর পুরুষ/মহিলা পূরণ করার ব্যবস্থা থাকবে। পরীক্ষার্থী পুরুষ হলে পুরুষের বাম দিকের ঘর এবং মহিলা হলে মহিলার বাম দিকের ঘরটি কালাে কালির বলপয়েন্ট কলমভদ্বারা ভরাট করতে হবে।

সহকারী শিক্ষক নিয়ােগ ২০১৮” এর লিখিত পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীদের জন্য নির্দেশনাবলী


•হাজিরা শীটে প্রার্থীর নাম, রােল নম্বর, প্রার্থীর স্বাক্ষরের জায়গা, উপস্থিতি নিশ্চিত করণের বৃত্ত, ওএমআর শীটের সেট কোড, প্রশ্ন পত্রের সেট কোড লেখার জায়গা ও কক্ষ পরিদর্শকের স্বাক্ষরের জায়গা থাকবে। প্রার্থীকে প্রশ্নপত্রের সেট কোড লিখে স্বাক্ষর করতে হবে। একই সাথে প্রার্থীকে হাজিরা শীটের উপস্থিতি বৃত্তটি ভরাট করতে হবে। উল্লেখ্য, অনলাইনে আপলােডকৃত আবেদনপত্রের প্রার্থীর স্বাক্ষরের সাথে হাজিরা শীটের স্বাক্ষরের মিল থাকতে হবে।

•এবারের পরীক্ষায় ওএমআর ফরমে সেট কোডসমূহ পূর্ব-পূরণকৃত অবস্থায় থাকবে। পরীক্ষার্থীকে কোন সেট কোডের ওএমআর ফরম দেয়া হবে তা এই প্রবেশপত্রে স্বাক্ষরের নীচে উল্লেখ করা আছে এবং পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষা হলে যে ওএমআর ফরমটি দেয়া হবে তাতে সেই সেট কোডটি পূর্বে-পূরণকৃত অবস্থায় আছে কী না তা পরীক্ষার্থী দেখে নিবে।

•এবারের পরীক্ষায় প্রশ্ন পত্রের সেট কোডসমূহ এবং ওএমআর ফরমের সেট কোড ভিন্ন হবে। পরীক্ষার্থী ওএমআর সেট কোড এর বিপরীতে কোন সেট কোডের প্রশ্ন পাবে তা পরীক্ষা শুরু হওয়ার ১৫ মিনিট আগে কক্ষ পরিদর্শক জানিয়ে দিবেন। পরীক্ষার্থী ঠিক কোডের প্রশ্নটি পেলেন কী না তা নিশ্চিত হয়ে নিবে।

•প্রবেশপত্রে নির্ধারিত ওএমআর-এর সেট কোডের বিপরীতে প্রশ্নের যে সেট কোড তা ব্যতীত অন্য সেট কোডে পরীক্ষা দিলে। উত্তরপত্রটি বাতিল বলে গণ্য হবে।

•প্রবেশপত্র ব্যতিরেকে কোন পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে দেয়া হবে না। পরীক্ষা কেন্দ্রে কোন বই, উত্তরপত্র, নােট বা অন্য কোন কাগজপত্র, ক্যালকুলেটর, মােবাইল ফোন, ভ্যানিটি ব্যাগ, পার্স, হাত ঘড়ি বা ঘড়ি জাতীয় বস্তু, ইলেকট্রনিক্স হাত ঘড়ি বা যে কোন ধরণের ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস বা এজাতীয় বস্তু সঙ্গে নিয়ে প্রবেশ করা বা সঙ্গে রাখা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। যদি কোন পরীক্ষার্থী উল্লিখিত দ্রব্যাদি সঙ্গে নিয়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করে তাকে তাৎক্ষণিক বহিষ্কার করাসহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

“মেধা ও যােগ্যতার ভিত্তিতেই চাকরী হবে। কোন ধরণের অর্থ লেনদেন বা তদবির করে চাকরী পাওয়ার। সুযােগ নেই। কোন ধরণের অর্থ লেনদেন করে প্রতারিত হবেন না।”

Related Content