প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নিয়োগ দেওয়া হবে ৬৫ হাজার হিসাবরক্ষক

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সৃষ্টি করা হচ্ছে ‘হিসাবরক্ষক’ পদ। সারা দেশে নিয়োগ পাবেন ৬৫ হাজার ৯৯ জন হিসাবরক্ষক। নিয়োগ পেতে চাইলে এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে হবে।

dpe education সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদ ১৩ হাজার, আবেদন ২৪ লাখ

দেশের সব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ‘হিসাবরক্ষক’ পদ সৃষ্টি করা হবে। সারা দেশে বর্তমানে ৬৫ হাজার ৯৯টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। এসব স্কুলে একজন করে হিসাবরক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে। এ হিসাবে সারা দেশে নিয়োগ পাবেন ৬৫ হাজার ৯৯ জন হিসাবরক্ষক।

শিক্ষা সংক্রান্ত সকল তথ্য পেতে আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সব ধরনের হিসাব সংরক্ষণ, পরিচালনাসহ বিদ্যালয়ের দাপ্তরিক সব কাজ প্রধান শিক্ষককে দেখতে হয়। এ ছাড়া সরকারের নানা ধরনের নির্দেশনামূলক কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত থাকার কারণে বিদ্যালয়ের পাঠদান কার্যক্রম তত্ত্বাবধান ও সমন্বয় সঠিকভাবে করতে পারছেন না প্রধান শিক্ষকরা। শুধু প্রধান শিক্ষক নন, সিনিয়র শিক্ষকদেরও এসব কাজে ব্যস্ত থাকতে হয়। শিক্ষকদের পাঠদানে আরো মনোনিবেশ করাতেই এ পদক্ষেপ। মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট দপ্তর জানায়, পদ সৃজন, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনসহ অন্যান্য প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে খানিকটা সময় লাগবে। চলতি অর্থবছরে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হতে পারে। আবেদনের যোগ্যতা যেকোনো স্বীকৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে বাণিজ্যে স্নাতক চাওয়া হতে পারে।

নিয়োগ প্রক্রিয়া

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) মো. গিয়াস উদ্দিন আহমেদ জানান, হিসাবরক্ষকের পদ সৃষ্টির নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অন্যান্য পদের মতো হিসাবরক্ষক পদেও লিখিত ও ভাইভার মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই করা হতে পারে। বাংলা, ইংরেজি, গণিত, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, সাধারণ জ্ঞান প্রভৃতি বিষয়ে এমসিকিউ পদ্ধতিতে প্রশ্ন হতে পারে। বিগত সালের বিসিএস, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগসহ বিভিন্ন চাকরির নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন সমাধান করলে কাজে দেবে।

Related Content