জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ভর্তির মাইগ্রেশন ও কোটার মেধা তালিকা প্রকাশ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ভর্তির মাইগ্রেশন ও কোটার মেধা তালিকা প্রকাশ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে ।প্রকাশিত নোটিশ অনুযায়ী স্নাতক (সম্মান) ভর্তির মাইগ্রেশন ও কোটার মেধা তালিকা ফলাফল ১৭ অক্টোবর প্রকাশ হবে।

এনইউ এর ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে অনার্স ১ম বর্ষে ভর্তি কার্যক্রমের ২য় মেধা তালিকার বিষয় পরিবর্তন ও কোটার মেধা তালিকা ১৭ অক্টোবর ২০১৯ তারিখে প্রকাশ করা হবে।

বিকাল ৪টার পরে এস.এম.এস এ এবং রাত ৯টার পরে অনলাইনে ফলাফল প্রকাশ করা হবে। অনলাইনে ফলাফল জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি বিষয়ক ওয়েবসাইটের পাশাপাশি Daily Result BD থেকেও জানা যাবে।

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে DailyResultBD এর ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel

কোটার মেধা তালিকায় স্থানপ্রাপ্ত ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ২০১৯-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে কোন শিক্ষা কার্যক্রমে ভর্তি হয়ে থাকলে তাকে অবশ্যই ২২ অক্টোবর, ২০১৯ তারিখের মধ্যে পূর্ববর্তী শিক্ষাবর্ষের ভর্তি বাতিল করে চূড়ান্ত ভর্তি ফরম উত্তোলন করতে হবে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ভর্তির মাইগ্রেশন ও কোটার মেধা তালিকা

মোবাইলে ফলাফল দেখার পদ্ধতিঃ বিকেল ৪টার পর মোবাইলে এস.এম.এস এর মাধ্যমে ফলাফল প্রকাশ হবে।

মেসেজে ফলাফল দেখার পদ্ধতি নিচে দেওয়া হলোঃ

NU <space> ATHN <space> Roll Number লিখে 16222 নম্বরে মেসেজ সেন্ড করে ফলাফল জানা যাবে।

অনলাইনে ফলাফল দেখার নিয়মঃ রাত ৯টার পর থেকে অনলাইনে উক্ত প্রকাশ করা হবে। ফলাফল দেখতে http://app.nu.edu.bd/nu-web/applicantLogin আপনার ভর্তির রোল নম্বর ও পিন নম্বর লিখে লগিন করতে হবেঃ

মাইগ্রেসন ও কোটার ফলাফল এর ফলাফল দেখতে লগিন করুন এখানেঃ
অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে ফলাফল জানতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

ভর্তি সংক্রান্ত কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ও তারিখ মাইগ্রেশন এর ক্ষেত্রেঃ

২য় মেধা তালিকায় ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে যাদের বিষয় পরিবর্তন হবে তাদের পরিবর্তিত বিষয়ের ফরম প্রিন্ট করে সংশ্লিষ্ট কলেজে জমা দেয়ার তারিখঃ ১৭/১০/২০১৯ থেকে ২২/১০/২০১৯
কোন শিক্ষার্থীর মাইগ্রেশন করে বিষয় পরিবর্তন হলে তার পূর্বের বিষয়ের ভর্তি বাতিল হয়ে যাবে এবং পরিবর্তিত বিষয়ে তার ভর্তি নিশ্চিত হবে৷ তবে কোন শিক্ষার্থীর বিষয় পরিবর্তন না হলে তার পূর্বের বিষয়ে ভর্তি বহাল থাকবে ৷

বিষয় পরিবর্তনের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীকে নতুন করে কোন ফি প্রদান করতে হবে না।
বিষয় পরিবর্তনের ফরম সংশ্লিষ্ট কলেজ কর্তৃক অনলাইনে নিশ্চয়ন করতে হবে না৷

কোটার ক্ষেত্রেঃ

কোটার মেধা তালিকায় স্থান প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের অনলাইনে চূড়ান্ত ভর্তি ফরম পূরণ করার তারিখঃ ১৭/১০/২০১৯ থেকে ২৩/১০/২০১৯
কোটার মেধা তালিকায় স্থান প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের অনলাইনে চূড়ান্ত ভর্তির ফরম প্রিন্ট করে ভর্তি ফি ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ সংশ্লিষ্ট কলেজে জমা দেয়ার সময়সীমাঃ ১৯/১০/২০১৯ থেকে ২৪ /১০/২০১৯
সংশ্লিষ্ট কলেজ কর্তৃক কোটার মেধা তালিকায় স্থানপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের চূড়ান্ত ভর্তি নিশ্চয়নের সময়সীমাঃ ১৯/১০/২০১৯ থেকে ২৬/১০/২০১৯

স্নাতক ভর্তি হতে যে সকল কাগজপত্র লাগবেঃ
অনলাইন থেকে মূল আবেদন ফর্মের – ২ সেট ( অবশ্যই A4 অফসেট সাদা কাগজেকালার প্রিন্ট করতে হবে)।
প্রাথমিক আবেদনের প্রবেশপত্র -২সেট।
পাসপোর্ট সাইজের ছবি ৪টি এবং স্ট্যাম্প সাইজ ৪টি পেছনে নাম লিখে দিতে হবে (কলেজভেদে কম বেশি হতে পারে)।
এসএসসি ও এইচএসসি এর সনদপত্র/প্রশংসা পত্রের সত্যায়িত ফটোকপি – ২ সেট।
এসএসসি ও এইচএসসি মূল নম্বরপত্রের (এইচএসসি এর মুল কপি) সত্যায়িত ফটোকপি – ২ সেট।
এসএসসি ও এইচএসসি রেজিস্ট্রেশন কার্ডের (এইচএসসি এর মুল কপি) সত্যায়িত ফটোকপি – ২ সেট। টাকা জমার রশিদ।

চারিত্রিক সনদপত্র (সাধারণত লাগেনা, কোন কোন কলেজে লাগতে পারে) – ২ টি।
উল্লেখ্য, সকল কাগজপত্র ২ কপি করে ২সেট বানাতে হবে যার এক কপি বিভাগীয় সেমিনারে এবং এক কপি অফিসে জমা দিতে হবে।

ভর্তি ফিঃ ভর্তি ফি কলেজ ভেদে ভিন্ন হয়ে থাকে তাই যার যার কলেজের নোটিশ বোর্ড থেকে জেনে নেওয়াই ভালো। সাধারণত সরকারী কলেজ হলে ৪-৫ হাজার আর বেসরকারী কলেজে হলে ১০-২০ হাজার টাকার মধ্যে হয়ে থাকে।

কোটার মেধাতালিকায় সুযোগ পাননি?
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ফলাফল কয়েকটি ধাপে প্রকাশ করে।

যেমনঃ ১ম মেধাতালিকা,১ম মেধাতালিকা, ২য় মেধাতালিকা (আসন খালি থাকা সাপেক্ষে) ও মাইগ্রেসন কোটা ও ও মাইগ্রেসন এবং রিলিজ স্লিপ।

এরপর রিলিজ স্লিপের আবেদন ফরম ছাড়া হবে। আর কোন মেধা তালিকা কিংবা কোটাতে সুযোগ না পেলেও রিলিজ স্লিপের মাধ্যমে কোন না কোন কলেজে ভর্তির সুযোগ তো থাকছেই।
যারা রিলিজ স্লিপের আবেদন করতে পারবেঃ

শিক্ষা সংক্রান্ত সকল তথ্য পেতে আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel

যারা মেধা তালিকায় স্থান পায়নি
যারা মেধা তালিকায় স্থান পেয়েও ভর্তি হয়নি
যারা ভর্তি বাতিল করেছে।

Related Content